ফতোয়া: মুফতি মেরাজ তাহসিন

ফতোয়া নং: ৩৭৭৭
তারিখ: ১-ফেব্রুয়ারি-২০১৬
বিষয়:

আমাদের পাশের বাড়িতে একটি পালিত কুকুর আছে। কুকুরটি অনেক সময়...

প্রশ্ন
আমাদের পাশের বাড়িতে একটি পালিত কুকুর আছে। কুকুরটি অনেক সময় জামা- কাপড় টেনে ধরে। আবার অনেক সময় গা ঘেষতে থাকে। জানার বিষয় হল, কুকুরের শরীর কাপড়ে বা গায়ে লাগলে তা নাপাক হবে কি না? মুখ দিয়ে ধরলেই বা কী হুকুম? জানালে কৃতজ্ঞ হব।
উত্তর
কুকুরের শরীর নাপাক নয়। এর শরীরে কাপড় স্পর্শ করলে কাপড় নাপাক হবে না। তবে কুকুরের লালা নাপাক। এটি মুখ দিয়ে জামা টেনে ধরলে যদি কাপড়ে লালা লেগে যায় তবে কাপড় নাপাক হয়ে যাবে। অন্যথায় নাপাক হবে না। এছাড়া কুকুরের শরীরে তরল নাপাক লেগে থাকলে সেক্ষেত্রেও তা স্পর্শ করলে কাপড় নাপাক হয়ে যাবে। প্রকাশ থাকে যে, শরীয়তসম্মত কারণ ছাড়া কুকুর পালা মারাত্মক গুনাহের কাজ। এ ব্যাপারে হাদীস শরীফে কঠিন ধমকি এসেছে। রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইরশাদ করেছেন, যে ব্যক্তি শিকার করা বা গবাদি পশু অথবা শস্যক্ষেত পাহারা দেওয়ার উদ্দেশ্য ছাড়া কুকুর পালে ঐ ব্যক্তির প্রত্যেকদিন দুই কিরাত পরিমাণ নেকি হ্রাস পায়। -সহীহ মুসলিম, হাদীস ১৫৭৫; জামে তিরমিযী, হাদীস, ১৪৮৭ আর এক হাদীসে আছে, এক কিরাত হল, উহুদ পাহাড় সমপরিমাণ। -মুসনাদে আহমদ, হাদীস ৪৬৫০ সুতরাং হাদীসে উল্লেখিত কারণ ছাড়া কুকুর পালা থেকে বিরত থাকতে হবে। -শরহুল মুনইয়াহ ১৯৩; আলবাহরুর রায়েক ১/১০১; ফাতাওয়া হিন্দিয়া ১/৪৮; আদ্দুররুল মুখতার ১/২০৮
উত্তর দিয়েছেন : মুফতি মেরাজ তাহসিন
এ বিষয়ে আরো ফতোয়া:
এ বিভাতের বাকি সকল ফতোয়া এখানে পাবেন : বিভাগ পাক-নাপাক